সিলেট ০২:০৬ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আফ্রিদির অধিনায়ক হওয়া নিয়ে যা বললেন শ্বশুর আফ্রিদি

আফ্রিদির অধিনায়ক হওয়া নিয়ে যা বললেন শ্বশুর আফ্রিদি সম্পর্কে জামাই-শ্বশুর দু’জন-বৈরাগীবার্তা ,সম্পর্কে জামাই-শ্বশুর দু’জন। তবুও মেয়ের জামাই শাহীন শাহ আফ্রিদিকে নিয়ে বেফাঁস মন্তব্য করতে পিছ পা হলেন না শ্বশুর শহীদ আফ্রিদি। পাকিস্তানের এই সাবেক অধিনায়কের ভাষ্য, শাহীনকে পাকিস্তানের টি-টোয়েন্টি দলের নেতৃত্ব দেয়া ভুল সিদ্ধান্ত।

২০২৩ ওয়ানডে বিশ্বকাপে সুবিধা করতে পারেনি পাকিস্তান। শিরোপা স্বপ্ন নিয়ে ভারত আসরে অংশ নেয়া গ্রিন ক্যাপরা বিদায় নেয় লীগ পর্ব থেকেই। পাকিস্তানের অধারাবাহিক পারফরম্যান্সে বাবর আজমের নেতৃত্বগুণ নিয়ে প্রশ্ন ওঠে। বিশ্বকাপ চলাকালেই শোনা যায়, পাকিস্তানের তিন ফরম্যাটের নেতৃত্বই হারাতে পারেন বাবর। বিশ্বকাপ শেষে গুঞ্জন সত্যি হয়, বাবরকে সরিয়ে দেয় পিসিবি। টি-টোয়েন্টিতে শাহীন শাহ আফ্রিদি এবং টেস্টে শান মাসুদকে অধিনায়ক করা হয়। ওয়ানডের অধিনায়ক এখনো ঘোষণা করেনি পিসিবি।

অস্ট্রেলিয়ায় এক অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে শহীদ আফ্রিদি বলেন, তিনি ভেবেছিলেন বাবরের পর পাকিস্তান টি-টোয়েন্টি দলের নেতৃত্বভার পাবেন উইকেটরক্ষক ব্যাটার মোহাম্মদ রিজওয়ান। তবে শাহীন শাহ আফ্রিদি অধিনায়ক হওয়াটা যেন মেনে নিতে পারছেন না তিনি।

শহীদ আফ্রিদি বলেন, ‘রিজওয়ানের পরিশ্রম এবং মনোযোগ প্রশংসাযোগ্য। তার সবচেয়ে বড় গুণ হলো, সে নিজের খেলায় মনোযোগ দেয়। কোথায় কী হচ্ছে, সেদিকে খেয়াল করে না। আমি এটা পছন্দ করি। সে সত্যিই একজন লড়াকু।’

আফ্রিদি বলেন, ‘আমি রিজওয়ানকে টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক হিসেবে দেখতে চেয়েছিলাম। কিন্তু ভুলবশত শাহীন (শাহ আফ্রিদি) নেতৃত্ব পেয়ে গেলো।’
গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে শহীদ আফ্রিদির কন্যা আনসা আফ্রিদির সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধেন শাহীন শাহ আফ্রিদি।

বিষয়ঃ
জনপ্রিয় সংবাদ

আফ্রিদির অধিনায়ক হওয়া নিয়ে যা বললেন শ্বশুর আফ্রিদি

প্রকাশিত হয়েছেঃ ১১:০৬:৩৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ জানুয়ারী ২০২৪

আফ্রিদির অধিনায়ক হওয়া নিয়ে যা বললেন শ্বশুর আফ্রিদি সম্পর্কে জামাই-শ্বশুর দু’জন-বৈরাগীবার্তা ,সম্পর্কে জামাই-শ্বশুর দু’জন। তবুও মেয়ের জামাই শাহীন শাহ আফ্রিদিকে নিয়ে বেফাঁস মন্তব্য করতে পিছ পা হলেন না শ্বশুর শহীদ আফ্রিদি। পাকিস্তানের এই সাবেক অধিনায়কের ভাষ্য, শাহীনকে পাকিস্তানের টি-টোয়েন্টি দলের নেতৃত্ব দেয়া ভুল সিদ্ধান্ত।

২০২৩ ওয়ানডে বিশ্বকাপে সুবিধা করতে পারেনি পাকিস্তান। শিরোপা স্বপ্ন নিয়ে ভারত আসরে অংশ নেয়া গ্রিন ক্যাপরা বিদায় নেয় লীগ পর্ব থেকেই। পাকিস্তানের অধারাবাহিক পারফরম্যান্সে বাবর আজমের নেতৃত্বগুণ নিয়ে প্রশ্ন ওঠে। বিশ্বকাপ চলাকালেই শোনা যায়, পাকিস্তানের তিন ফরম্যাটের নেতৃত্বই হারাতে পারেন বাবর। বিশ্বকাপ শেষে গুঞ্জন সত্যি হয়, বাবরকে সরিয়ে দেয় পিসিবি। টি-টোয়েন্টিতে শাহীন শাহ আফ্রিদি এবং টেস্টে শান মাসুদকে অধিনায়ক করা হয়। ওয়ানডের অধিনায়ক এখনো ঘোষণা করেনি পিসিবি।

অস্ট্রেলিয়ায় এক অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়ে শহীদ আফ্রিদি বলেন, তিনি ভেবেছিলেন বাবরের পর পাকিস্তান টি-টোয়েন্টি দলের নেতৃত্বভার পাবেন উইকেটরক্ষক ব্যাটার মোহাম্মদ রিজওয়ান। তবে শাহীন শাহ আফ্রিদি অধিনায়ক হওয়াটা যেন মেনে নিতে পারছেন না তিনি।

শহীদ আফ্রিদি বলেন, ‘রিজওয়ানের পরিশ্রম এবং মনোযোগ প্রশংসাযোগ্য। তার সবচেয়ে বড় গুণ হলো, সে নিজের খেলায় মনোযোগ দেয়। কোথায় কী হচ্ছে, সেদিকে খেয়াল করে না। আমি এটা পছন্দ করি। সে সত্যিই একজন লড়াকু।’

আফ্রিদি বলেন, ‘আমি রিজওয়ানকে টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক হিসেবে দেখতে চেয়েছিলাম। কিন্তু ভুলবশত শাহীন (শাহ আফ্রিদি) নেতৃত্ব পেয়ে গেলো।’
গত বছরের ফেব্রুয়ারিতে শহীদ আফ্রিদির কন্যা আনসা আফ্রিদির সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধেন শাহীন শাহ আফ্রিদি।