সিলেট ০৪:১৩ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সুযোগ দিন, গোলাপগঞ্জ-বিয়ানীবাজারকে বদলে দেব: সরওয়ার হোসেন

সুযোগ দিন, গোলাপগঞ্জ-বিয়ানীবাজারকে বদলে দেব: সরওয়ার হোসেন

কাঙ্ক্ষিত উন্নয়নের জন্য ঈগল প্রতীকে ভোট দিয়ে জয়ী করতে স্থানীয় ভোটারদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন সিলেট-৬ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী ও আওয়ামী লীগ নেতা সরওয়ার হোসেন। তিনি বলেছেন, আমাকে একটিবার সুযোগ দিন। আগামী ৭ তারিখে আপনাদের কাছে একটি করে ভোট ভিক্ষা চাই। ইনশাআল্লাহ আগামী ৫ বছরের জন্য আমি আপনাদের সেবক হয়ে গোলাপগঞ্জ-বিয়ানীবাজারকে উন্নয়নের মাধ্যমে বদলে দেব।

সুযোগ দিন, গোলাপগঞ্জ-বিয়ানীবাজারকে বদলে দেব: সরওয়ার হোসেন

বুধবার (৩ জানুয়ারি) বিকেলে গোলাপগঞ্জের পৌর শহরে নির্বাচনী জনসভায় এসব কথা বলেন সরওয়ার হোসেন।

এর আগে ব্যানার সহকারে উপজেলা প্রতিটি ইউনিয়ন থেকে খণ্ড খণ্ড মিছিল নিয়ে সভাস্থলে যোগ দেন হাজার হাজার কর্মী-সমর্থকরা। এ সময় ঈগল প্রতীকের স্লোগানে মুখরিত হয়ে ওঠে গোলাপগঞ্জ পৌর শহর।

বক্তব্যে সরওয়ার হোসেন বলেন, গত ১৫ বছরে গোলাপগঞ্জ- বিয়ানীবাজার উপজেলায় তেমন কোনো উন্নয়ন হয়নি। আমি কথা দিচ্ছি এ গোলাপগঞ্জ-বিয়ানীবাজারে আমার আবেগ আমার অনুভূতি, আমি নির্বাচিত হলে এ দুই উপজেলায় রাস্তাঘাট, শিক্ষা, স্বাস্থ্য খাতে উন্নয়নের পাশাপাশি অবকাঠামো উন্নয়নে ভূমিকা রাখবো। ভোট দিয়ে জয়ী করলে এ আসনকে একটি সমৃদ্ধ নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে কাজ করব। যদি না পারি আর কখনো আপনাদের কাছে ভোট চাইতে আসব না।

তিনি বলেন, মনে রাখবেন আমি স্বতন্ত্র ঠিকই, কিন্তু আমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক এবং জননেত্রী শেখ হাসিনার পারমিশন নিয়ে স্বতন্ত্র। আমাকে একেবারে স্বতন্ত্র যেটা তা বলা ঠিক হবে না। আমি তো জননেত্রী শেখ হাসিনার পারমিশন নিয়ে স্বতন্ত্র। আমি বিগত দিনে বন্যা ও করোনা মহামারিতে আপনাদের পাশে যখন কেউ ছিল না, কিন্তু আমি জীবন বাজি রেখে সাধ্যমত সাহায্য সহযোগিতা নিয়ে আপনাদের পাশে দাঁড়িয়েছি।

তিনি বলেন, একটি পক্ষ ভোট ছাড়াই নির্বাচিত হয়ে যাবে বলে অপপ্রচার চালাচ্ছে। আপনারা এসব গুজবে কান দিবেন না। আগামী ৭ জানুয়ারি ঈগল প্রতীকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করে সকল ষড়যন্ত্রের জবাব দেওয়ার আহবান জানান তিনি।

বুধবারীবাজার ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান শরফ উদ্দিন শরফের সভাপতিত্বে ও গোলাপগঞ্জ উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক ওয়েছুর রহমান ওয়েছের পরিচালনায় জনসভায় প্রধান বক্তার বক্তব্য দেন বিয়ানীবাজার উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কাশেম পল্লব।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন গোলাপগঞ্জ পৌরসভার সাবেক মেয়র জাকারিয়া আহমেদ পাপলু, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আব্দুল বারী, গোলাপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আবুল লেইস, দুর্যোগ ও ব্যবস্থাপনা বিষয়ক সম্পাদক সাহাব উদ্দিন, সদস্য এমএ ওয়াদুদ এমরুল, ইসমাইল হোসেন সিরাজী, কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগের উপ-পানিসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক জামিল আহমদ, ব্রাজিল যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা আহবায়ক আবু সুফিয়ান উজ্জল প্রমুখ।

বিয়ানীবাজার উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কাশেম পল্লব বলেন, গত ১৫ বছরে আমরা কী পেয়েছি। সারাদেশে উন্নয়ন হলো আর আমরা পেয়েছি লাঞ্ছনা। আমরা আর উন্নয়ন বঞ্চিত থাকতে চাই না।

তিনি বলেন, সরওয়ার হোসেন একজন ক্লিন ইমেজের রাজনীতিবিদ। তিনি জনপ্রতিনিধি না হয়েও আমাদের চেয়ে অনেক উন্নয়ন করেছেন। এরকম একজন মানুষকে যদি আমরা নির্বাচিত করতে পারি। তাতে আমাদের এলাকার উন্নয়ন দ্রুত তরান্বিত হবে।

গোলাপগঞ্জ পৌরসভার সাবেক মেয়র জাকারিয়া আহমেদ পাপলু বলেন, গত ১৫টি বছর সরওয়ার হোসেন আমাদের সুখে-দুঃখে পাশে ছিলেন। বিভিন্ন খাত থেকে উন্নয়ন করেছেন। তাই আগামী ৭ জানুয়ারি এলাকার স্বার্থে সরওয়ার হোসেনের ঈগল প্রতীকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করে তার মাধ্যমে দুই উপজেলায় ব্যাপক উন্নয়ন দেখতে চাই।

তিনি বলেন, আমরা বিগত দিনে অনেক ঠকেছি। আর ঠকতে চাই না। আশা করি, সরওয়ার হোসেনের মাধ্যমে উন্নয়নই পাব, আমরা আর ঠকব না।

জনপ্রিয় সংবাদ

সুযোগ দিন, গোলাপগঞ্জ-বিয়ানীবাজারকে বদলে দেব: সরওয়ার হোসেন

প্রকাশিত হয়েছেঃ ১০:১৫:৪৮ অপরাহ্ন, বুধবার, ৩ জানুয়ারী ২০২৪

সুযোগ দিন, গোলাপগঞ্জ-বিয়ানীবাজারকে বদলে দেব: সরওয়ার হোসেন

কাঙ্ক্ষিত উন্নয়নের জন্য ঈগল প্রতীকে ভোট দিয়ে জয়ী করতে স্থানীয় ভোটারদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন সিলেট-৬ আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী ও আওয়ামী লীগ নেতা সরওয়ার হোসেন। তিনি বলেছেন, আমাকে একটিবার সুযোগ দিন। আগামী ৭ তারিখে আপনাদের কাছে একটি করে ভোট ভিক্ষা চাই। ইনশাআল্লাহ আগামী ৫ বছরের জন্য আমি আপনাদের সেবক হয়ে গোলাপগঞ্জ-বিয়ানীবাজারকে উন্নয়নের মাধ্যমে বদলে দেব।

সুযোগ দিন, গোলাপগঞ্জ-বিয়ানীবাজারকে বদলে দেব: সরওয়ার হোসেন

বুধবার (৩ জানুয়ারি) বিকেলে গোলাপগঞ্জের পৌর শহরে নির্বাচনী জনসভায় এসব কথা বলেন সরওয়ার হোসেন।

এর আগে ব্যানার সহকারে উপজেলা প্রতিটি ইউনিয়ন থেকে খণ্ড খণ্ড মিছিল নিয়ে সভাস্থলে যোগ দেন হাজার হাজার কর্মী-সমর্থকরা। এ সময় ঈগল প্রতীকের স্লোগানে মুখরিত হয়ে ওঠে গোলাপগঞ্জ পৌর শহর।

বক্তব্যে সরওয়ার হোসেন বলেন, গত ১৫ বছরে গোলাপগঞ্জ- বিয়ানীবাজার উপজেলায় তেমন কোনো উন্নয়ন হয়নি। আমি কথা দিচ্ছি এ গোলাপগঞ্জ-বিয়ানীবাজারে আমার আবেগ আমার অনুভূতি, আমি নির্বাচিত হলে এ দুই উপজেলায় রাস্তাঘাট, শিক্ষা, স্বাস্থ্য খাতে উন্নয়নের পাশাপাশি অবকাঠামো উন্নয়নে ভূমিকা রাখবো। ভোট দিয়ে জয়ী করলে এ আসনকে একটি সমৃদ্ধ নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে কাজ করব। যদি না পারি আর কখনো আপনাদের কাছে ভোট চাইতে আসব না।

তিনি বলেন, মনে রাখবেন আমি স্বতন্ত্র ঠিকই, কিন্তু আমি বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক এবং জননেত্রী শেখ হাসিনার পারমিশন নিয়ে স্বতন্ত্র। আমাকে একেবারে স্বতন্ত্র যেটা তা বলা ঠিক হবে না। আমি তো জননেত্রী শেখ হাসিনার পারমিশন নিয়ে স্বতন্ত্র। আমি বিগত দিনে বন্যা ও করোনা মহামারিতে আপনাদের পাশে যখন কেউ ছিল না, কিন্তু আমি জীবন বাজি রেখে সাধ্যমত সাহায্য সহযোগিতা নিয়ে আপনাদের পাশে দাঁড়িয়েছি।

তিনি বলেন, একটি পক্ষ ভোট ছাড়াই নির্বাচিত হয়ে যাবে বলে অপপ্রচার চালাচ্ছে। আপনারা এসব গুজবে কান দিবেন না। আগামী ৭ জানুয়ারি ঈগল প্রতীকে ভোট দিয়ে জয়যুক্ত করে সকল ষড়যন্ত্রের জবাব দেওয়ার আহবান জানান তিনি।

বুধবারীবাজার ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান শরফ উদ্দিন শরফের সভাপতিত্বে ও গোলাপগঞ্জ উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক ওয়েছুর রহমান ওয়েছের পরিচালনায় জনসভায় প্রধান বক্তার বক্তব্য দেন বিয়ানীবাজার উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কাশেম পল্লব।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন গোলাপগঞ্জ পৌরসভার সাবেক মেয়র জাকারিয়া আহমেদ পাপলু, সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য আব্দুল বারী, গোলাপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক আবুল লেইস, দুর্যোগ ও ব্যবস্থাপনা বিষয়ক সম্পাদক সাহাব উদ্দিন, সদস্য এমএ ওয়াদুদ এমরুল, ইসমাইল হোসেন সিরাজী, কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবক লীগের উপ-পানিসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক জামিল আহমদ, ব্রাজিল যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা আহবায়ক আবু সুফিয়ান উজ্জল প্রমুখ।

বিয়ানীবাজার উপজেলা চেয়ারম্যান আবুল কাশেম পল্লব বলেন, গত ১৫ বছরে আমরা কী পেয়েছি। সারাদেশে উন্নয়ন হলো আর আমরা পেয়েছি লাঞ্ছনা। আমরা আর উন্নয়ন বঞ্চিত থাকতে চাই না।

তিনি বলেন, সরওয়ার হোসেন একজন ক্লিন ইমেজের রাজনীতিবিদ। তিনি জনপ্রতিনিধি না হয়েও আমাদের চেয়ে অনেক উন্নয়ন করেছেন। এরকম একজন মানুষকে যদি আমরা নির্বাচিত করতে পারি। তাতে আমাদের এলাকার উন্নয়ন দ্রুত তরান্বিত হবে।

গোলাপগঞ্জ পৌরসভার সাবেক মেয়র জাকারিয়া আহমেদ পাপলু বলেন, গত ১৫টি বছর সরওয়ার হোসেন আমাদের সুখে-দুঃখে পাশে ছিলেন। বিভিন্ন খাত থেকে উন্নয়ন করেছেন। তাই আগামী ৭ জানুয়ারি এলাকার স্বার্থে সরওয়ার হোসেনের ঈগল প্রতীকে ভোট দিয়ে নির্বাচিত করে তার মাধ্যমে দুই উপজেলায় ব্যাপক উন্নয়ন দেখতে চাই।

তিনি বলেন, আমরা বিগত দিনে অনেক ঠকেছি। আর ঠকতে চাই না। আশা করি, সরওয়ার হোসেনের মাধ্যমে উন্নয়নই পাব, আমরা আর ঠকব না।