সিলেটরবিবার , ২৮শে নভেম্বর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ
  1. অর্থনীতি
  2. আইন-আদালত
  3. আন্তর্জাতিক
  4. এক্সক্লুসিভ
  5. কৃষি ও প্রকৃতি
  6. ক্যাম্পাস
  7. খেলা
  8. গণমাধ্যম
  9. জবস
  10. জাতীয়
  11. জোকস
  12. টপ নিউজ
  13. তথ্যপ্রযুক্তি
  14. ধর্ম
  15. প্রবাস

২৭ মাস আগে হারিয়ে যাওয়া মাকে ফিরে পেলেন সন্তানেরা ফেসবুকে ভিডিও দেখে

বৈরাগীবার্তা অনলাইন ডেস্ক
আপডেট : নভেম্বর ২৪, ২০২১
Link Copied!

২৭ মাস আগে হারিয়ে যাওয়া মাকে ফিরে পেলেন সন্তানেরা ফেসবুকে ভিডিও দেখে

৬৫ বছর বয়সী মানসিক ভারসাম্যহীন অজুফা বেগম ২৭ মাস আগে হারিয়ে যায় ঢাকার মিরপুরে ছেলের বাসা থেকে। পিরোজপুরের নেছারবাদ উপজেলার বিন্না বাজারে ১ মাস আগে অজুফা বেগমকে ঘুরতে দেখে আশ্রয় দেয় এলাকার স্থানীয় কোহিনূর বেগম নামের একজন ভদ্র মহিলা।

গত ২০ নভেম্বর, অজুফা বেগমের ছবি তোলেন এবং ভিডিও করেন আলী হায়দার মল্লিক আবদুল্লাহ তামে এক এনজিও কর্মী। এই ছবি এবং ভিডিও পাঠানো হয় তাঁর পরিচিত আইনজীবী আরিফুর রহমানের কাছে। যা আরিফুর রহমান ফেইসবুকে পোস্ট করেন।

গত সোমবার সেই ভিডিও দেখে অজুফা বেগমের আত্নীয়রা শনাক্ত করতে পারে অজুফা বেগমকে এবং আরিফুর রহমানের সাথে যোগাযোগ করে। আজ বুধবার সকালে অজুফা বেগমের ছেলে দুলাল মিয়া ও মেয়ে নাজমা বেগম নেছারবাদ উপজেলার বিন্না গ্রামে পৌছে যান মায়ের খোঁজে। মাকে দেখে কান্নায় ফেটে পড়ে সন্তানেরা। অজুফা বেগমকে তাঁর সন্তানেরা তাদের সাথেই নিয়ে যায়। অজুফা বেগমের স্থায়ী ঠিকানা কিশোরগঞ্জ জেলার কটিয়াদি উপজেলার চর বেতাল গ্রামে।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, ২০১৯ সালের ২৮ আগস্ট অজুফা বেগম রাজধানীর মিরপুরে ছেলে দুলাল মিয়ার বাসা থেকে হারিয়ে যান। পরিচিতি সকল জায়গায়া খোঁজ করে খোঁজ না মেলায় দুলাল মিয়া একই বছরের ৫ সেপ্টেম্বর মিরপুর রূপনগর থানায় জিডি করেন।

গত অক্টোবর মাসে (২০২১) অর্থাৎ একমাস আগে নেছারবাদ উপজেলার বিন্না বাজারে অজুফা বেগমকে ঘুরতে দেখে কোহিনূর বেগমের নিকট আশ্রয়ে রাখেন বলদিয়া ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সম্মানীয় সদস্য বাবুল বাহাদুর।

দুলাল মিয়া বলেন, “মাকে তন্ন তন্ন করে খুঁজেছি অনেক জায়গায়, আত্নীয়দের বাসা, বাজার-ঘাট, বাস-টার্মিনাল সবজায়গায়। খুঁজতে খুঁজতে একসময় পাওয়ার আশাও ছেড়ে দিয়েছিলাম। এতো দিন পর অবশেষে মাকে আবার ফিরে পেলাম। আল্লাহর কাছে লাখো কোটি শুকরিয়া।”

যার পোস্ট দেখে মাকে চিনতে পারেন স্বজনরা সেই আইনজীবী মোঃ আরিফুর রহমান বলেন, “আমার একটা ফেইসবুক স্ট্যাটাসের কারণে আজ এক মা আর তার সন্তানেরা আবার একত্র হতে পেরেছে এতো দিন পর। এটা খুবই আনন্দদায়ক একটা বিষয়। আমাদের সকলকে তথ্য ও প্রযুক্তি বেশি বেশি ভালো কাজে ব্যবহার করা উচিত।”

বলদিয়া ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য বাবুল বাহাদুর জানান, “অজুফা বেগমকে রাস্তায়া ভারসাম্যহীন অবস্থায় দেখে বেশ খারাপ লেগেছিলো। বৃদ্ধ একজন মা এভাবে রাস্তায় ঘোরাফেরা করছে। তাকে কোহিনূর বেগম নামক এক মহিলার কাছে থাকার ব্যবস্থা করে দেই। অবশেষে তাকে সন্তানদের হাতে তুলে দিতে পেরে খুবই ভালো লাগছে।”

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।